আস্ক প্রশ্নে আপনাকে স্বাগতম ! এটি একটি প্রশ্নোত্তর ভিত্তিক কমিউনিটি। এই সাইট সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন ...
198 বার প্রদর্শিত
"যৌন" বিভাগে করেছেন (9,700 পয়েন্ট) 92 510 1344
বন্ধ করেছেন
এটির ডুপ্লিকেট হওয়াতে বন্ধ করা হয়েছে : একটি মেয়ে কুমারি কিনা তা বুঝার কোন উপায় আছে ?

2 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (7,782 পয়েন্ট) 339 1120 2176
পূনঃপ্রদর্শিত করেছেন
প্রকৃত পক্ষে কুমারী মেয়ে চেনার কোনো উপায় নেই।তবে কিছু কিছু নিদর্শন দেখে কুমারী মেয়ে চিহ্নিত করা হয়।১.কুমারী মেয়েদের স্তন সংকুচিত থাকবে। ২.যোনির পাপড়ী গুলো খুব কাছাকাছি থাকবে। ৩.স্তনের বোটার রং বাদামী হবে।৪.পাপড়ীতে হাত না দেয়া গোলাপ খুব সহজেই চিহ্নিত করা যায়। তবে সকল ক্ষেত্রে এই নিয়ম কার্যকরী নয়।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (2,304 পয়েন্ট) 4 10 27
পূনঃপ্রদর্শিত করেছেন

ভার্জিন মেয়ে চেনার জন্য সাধারণত তেমন কোন লক্ষণ নেই। তবে মেয়েদের যোনী এবং স্তন দেখে মোটামুটি ভার্জিন মেয়ে চেনা যায়। তবে অনেক মেয়ের বংশগতভাবেই স্তন বড় থাকে। এমনও ঘটনা দেখা গেছে যে, একটি মেয়ের স্তন বেশ বড়, কিন্তু কোন ছেলেকে কিস করা তো দূরের কথা, কখনো হস্তমৈথুন এবং সেক্স পর্যন্ত করেনি। তার মানে কী এই দাড়াঁবে যে, মেয়েটি ভার্জিনিটি হারিয়েছে? মোটেই নয়। আবার এমনও ঘটনা রয়েছে যে, কোন মেয়ে তার জীবনে প্রথম সেক্স করেছে, কিন্তু কোন রক্তপাত হয়নি। তার মানে কিন্তু এই নয় যে, আপনার আগে কোন পুরুষ তার ভার্জিনিটি নিয়েছে। তবে আসলেই ভার্জিন মেয়ে চেনার তেমন কোন লক্ষণ নেই। তবুও নিম্নে যোনী এবং স্তন দেখে ভার্জিন মেয়ে চেনার কয়েকটি লক্ষণ তুলে ধরা হলোঃ

১. যোনীঃ
ক. ল্যাবিয়া মেজরা অর্থাৎ বাইরের পাপড়ি প্রায় সম্পূর্ণ ভাবে একসাথে লেগে থাকবে এবং যোনীমুখ দেখা যাবেনা।
খ. ল্যাবিয়া মাইনরা অর্থাৎ ভিতরের পাপড়িও সম্পূর্ণভাবে বন্ধ থাকবে এবং ল্যাবিয়া মেজরা দিয়ে ঢাকা থাকবে পুরোটাই। ল্যাবিয়া মেজরা না সরালে দেখা যাবেনা।
গ. হাইমেন অর্থাৎ সতিচ্ছেদ অক্ষত থাকবে। যদিও অনেক কারনেই ছিঁড়ে যেতে পারে। এটি ছিঁড়লে সাধারণত রক্তক্ষরণ হয়।
ঘ. ল্যাবিয়া মাইনরার নিচের প্রান্ত একত্রে থাকবে।
ঙ. ক্লাইটরিস/ক্লিটোরিস খুব ছোট এবং এর আবরণকারী চামড়াও পাতলা হবে।
চ. যোনীপথ সরু এবং ভিতরের ভাঁজগুলি কম মসৃণ হবে। ভাজ অনেক বেশি হবে।
২. স্তনঃ
ক. স্তন ছোট হবে।
খ. চ্যাপ্টা হবে, গোল নয়।
গ. দৃঢ় হবে, তুলতুলে নয়।
ঘ. নিপলের চারপাশে যে গাঢ় অংশ থাকে তার রঙ গোলাপি থেকে হালকা বাদামী রঙ এর মতো হবে (কম গাঢ় রঙ হবে) এবং এই অংশ আয়তনে ছোট হবে।
ঙ. নিপলের আকার ছোট হবে।
সিউডোভারজিনঃ অনেক সময় অনেক মেয়ের কয়েকবার যৌনমিলনের পরেও হাইমেন বা সতীচ্ছদ অক্ষত থাকে। এদের সিউডোভারজিন বা নকল ভার্জিন বলা হয়। তবে এর হার অনেক কম।
সাধারণত এভাবেই একটা মেয়ের ভার্জিনিটি চিহ্নিত করা যায়। তবে যেসব মেয়ে বেশি খেলাধুলা/ শরীরচর্চা করে, সাইকেল/মোটরসাইকেল চালায়, ঘোড়ায় চড়ে এবং হস্তমৈথুন করে তাদের হাইমেন বা সতীচ্ছদ ছিঁড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশি।


ধন্যবাদ। 

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
06 জুলাই 2018 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sirazul islam (2,720 পয়েন্ট) 18 118 386
1 উত্তর
01 জানুয়ারি 2018 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Ayaan (2,781 পয়েন্ট) 84 235 360
2 টি উত্তর
20 জুলাই 2018 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
1 উত্তর
05 জুন 2018 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Mehedi Hasan (3,100 পয়েন্ট) 39 142 340
0 টি উত্তর
25 জুন 2018 "যৌন" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Manik Raj (804 পয়েন্ট) 8 34 116

23,633 টি প্রশ্ন

24,620 টি উত্তর

3,087 টি মন্তব্য

1,932 জন সদস্য



আস্ক প্রশ্ন এমন একটি প্ল্যাটফর্ম, যেখানে কমিউনিটির এই প্ল্যাটফর্মের সদস্যের মাধ্যমে আপনার প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান পেতে পারেন এবং আপনি অন্য জনের প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান দিতে পারবেন। মূলত এটি বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য একটি প্রশ্নোত্তর ভিত্তিক কমিউনিটি। বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পাশাপাশি অনলাইনে উন্মুক্ত তথ্যভান্ডার গড়ে তোলা আমাদের লক্ষ্য।

  1. অা ক ম আজাদ

    1057 পয়েন্ট

    455 উত্তর

    351 প্রশ্ন

  2. Sajjad Jayed

    1033 পয়েন্ট

    501 উত্তর

    490 প্রশ্ন

  3. Md.Rasel Ahmed

    902 পয়েন্ট

    388 উত্তর

    248 প্রশ্ন

  4. S.S.D

    686 পয়েন্ট

    239 উত্তর

    87 প্রশ্ন

  5. কামরুল হাসান ফরহাদ

    566 পয়েন্ট

    290 উত্তর

    308 প্রশ্ন

শীর্ষ বিশেষ সদস্য

109 টি পরীক্ষণ কার্যক্রম
91 টি পরীক্ষণ কার্যক্রম
29 টি পরীক্ষণ কার্যক্রম
29 টি পরীক্ষণ কার্যক্রম
20 টি পরীক্ষণ কার্যক্রম
...