আস্ক প্রশ্নে আপনাকে স্বাগতম ! এটি একটি প্রশ্নোত্তর ভিত্তিক কমিউনিটি। এই সাইট সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন ...
1,677 বার প্রদর্শিত
11 মে 2018 "ইসলাম ধর্ম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (3,504 পয়েন্ট) 36 131 284

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
12 মে 2018 উত্তর প্রদান করেছেন (8,267 পয়েন্ট) 26 91 234
যাকাতের মাসারিফ (খাত) আটটি। এই ৮টি খাতের কথা স্পষ্টভাবে কুরআনুল কারীমে উল্লেখ আছে। যেমন আল্লাহ তা'আলা বলেনঃ- ﺇِﻧَّﻤَﺎ ﭐﻟﺼَّﺪَﻗَٰﺖُ ﻟِﻠْﻔُﻘَﺮَﺍٓﺀِ ﻭَﭐﻟْﻤَﺴَٰﻜِﻴﻦِ ﻭَﭐﻟْﻌَٰﻤِﻠِﻴﻦَ ﻋَﻠَﻴْﻬَﺎ ﻭَﭐﻟْﻤُﺆَﻟَّﻔَﺔِ ﻗُﻠُﻮﺑُﻬُﻢْ ﻭَﻓِﻰ ﭐﻟﺮِّﻗَﺎﺏِ ﻭَﭐﻟْﻐَٰﺮِﻣِﻴﻦَ ﻭَﻓِﻰ ﺳَﺒِﻴﻞِ ﭐﻟﻠَّﻪِ ﻭَﭐﺑْﻦِ ﭐﻟﺴَّﺒِﻴﻞِ ﻓَﺮِﻳﻀَﺔً ﻣِّﻦَ ﭐﻟﻠَّﻪِ ﻭَﭐﻟﻠَّﻪُ ﻋَﻠِﻴﻢٌ ﺣَﻜِﻴﻢٌ নিশ্চয় সদাকা (যাকাত) হচ্ছে ফকীর ও মিসকীনদের জন্য এবং এতে নিয়োজিত কর্মচারীদের জন্য, আর যাদের অন্তর আকৃষ্ট করতে হয় তাদের জন্য; (তা বণ্টন করা যায়) দাস আযাদ করার ক্ষেত্রে, ঋণগ্রস্তদের মধ্যে, আল্লাহর রাস্তায় এবং মুসাফিরদের মধ্যে। এটি আল্লাহর পক্ষ থেকে নির্ধারিত, আর আল্লাহ মহাজ্ঞানী, প্রজ্ঞাময়। ( সূরা আত-তাওবা,আয়াতঃ ৬০ ) যাকাতের মাসারিফ তথা খাতসমূহ নিম্নে তুলে ধরলাম। ১। ফকির বা দরিদ্রঃ ফকিরকে বাংলায় বলা হয়।গরিব । এরা সমাজের সেই অংশ বা এরা এমন ব্যক্তি যার সামান্য সম্পদ থাকে, তবে তা প্রয়োজনের তুলনায় নগণ্য। ২। মিসকীনঃ মিসকীন হলা এমন ব্যক্তি যার কোনা সম্পদ নেই, একেবারে নিঃস্ব। অর্থাৎ যারা নিঃস্ব, নিজের পেটের অন্নও জোগাড় করতে পারে না এবং অভাবের তাড়নায় অন্যের কাছে হাত পাততে বাধ্য হয়, সেসব মানবসন্তানকে বলা হয় মিসকীন। ৩। যাকাত আদায় ও বন্টনের কর্মচারীঃ যারা যাকাত আদায় করার জন্য রাষ্ট্রপ্রধান কর্তৃক নিয়োজিত আছেন, তাদেরকে জাকাত প্রদান করা যাবে। ৪। মন জয় করার উদ্দেশ্যেঃ এ ধরনের লোকদের মধ্যে নও-মুসলিম অন্যতম। তাদের মন জয় করার জন্য অথবা তাদের সমস্যা দূর করার জন্য যাকাত প্রদান করা যাবে। ৫। দাসমুক্তির জন্যঃ দাসমুক্তি বলতে দাসত্ব শৃঙ্খলে আবদ্ধ লোক এবং বন্দীদের মুক্ত করাকে বোঝানো হয়েছে। মানুষকে একমাত্র আল্লাহর দাসত্বে ফিরিয়ে আনার জন্য এসব দাসকে মুক্ত করায় যাকাত ব্যয় করা যাবে। ৬। ঋণগ্রস্তদের জন্যঃ ঋণী ব্যক্তি ঋণভারে জর্জরিত হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করে। সে মানসিকভাবে হতাশ হয়ে পড়ে। তাদের জীবনীশক্তিও এতে লোপ পায়। এরা অনেক সময় ঋণের তাড়নায় অসামাজিক কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে সমাজকে কলুষিত করে। তাই ঋণী ব্যক্তির ঋণ পরিশোধের জন্য যাকাতের অর্থ প্রদান করা যাবে। ৭। আল্লাহর রাস্তায়ঃ আল্লাহর রাস্তা বলতে কুরআনে “ফী সাবীলিল্লাহ'-এর কথা বলা হয়েছে। তাই আল্লাহর কাজে যাকাত প্রদান করা যাবে। ৮। মুসাফিরঃ সফরে এসে কোনো মুসাফির নিঃস্ব হয়ে পড়লে, তাকে যাকাতের অর্থ দেয়া যাবে। প্রশ্নটি করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ।
আ ক ম আজাদ আস্ক প্রশ্ন ডটকমের সাথে আছেন সমন্বয়ক হিসাবে। বর্তমানে তিনি একজন শিক্ষক। আস্ক প্রশ্ন ডটকমকে বাছাই করে নিয়েছেন জ্ঞান আহরণ ও জ্ঞান বিতরণের মাধ্যম হিসাবে। ভবিষ্যতে একজন বক্তা ও লেখক হওয়ার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছেন। এই আশা পূর্ণতা পেতে সকলের নিকট দু'আপার্থী।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
15 জুন 2018 "ইসলাম ধর্ম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন শামীম মাহমুদ (7,783 পয়েন্ট) 495 1430 2526
1 উত্তর
10 মে 2018 "ধর্ম ও বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sajjad Jayed (10,123 পয়েন্ট) 162 681 1660
1 উত্তর
18 সেপ্টেম্বর 2019 "ইসলাম ধর্ম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন কামরুল হাসান ফরহাদ (5,889 পয়েন্ট) 127 470 887
1 উত্তর
02 জুলাই 2018 "ইসলাম ধর্ম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল

27,611 টি প্রশ্ন

29,359 টি উত্তর

3,122 টি মন্তব্য

2,503 জন সদস্য



আস্ক প্রশ্ন এমন একটি প্ল্যাটফর্ম, যেখানে কমিউনিটির এই প্ল্যাটফর্মের সদস্যের মাধ্যমে আপনার প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান পেতে পারেন এবং আপনি অন্য জনের প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান দিতে পারবেন। মূলত এটি বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য একটি প্রশ্নোত্তর ভিত্তিক কমিউনিটি। বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পাশাপাশি অনলাইনে উন্মুক্ত তথ্যভান্ডার গড়ে তোলা আমাদের লক্ষ্য।

  1. Nazmul Haque

    60 পয়েন্ট

    5 উত্তর

    5 প্রশ্ন

  2. মেহেদী হাসান জনী

    56 পয়েন্ট

    2 উত্তর

    0 প্রশ্ন

  3. লেখক

    53 পয়েন্ট

    1 উত্তর

    0 প্রশ্ন

  4. Shafiqul islam

    50 পয়েন্ট

    0 উত্তর

    0 প্রশ্ন

  5. Minu

    50 পয়েন্ট

    0 উত্তর

    0 প্রশ্ন

শীর্ষ বিশেষ সদস্য

38 টি পরীক্ষণ কার্যক্রম
1 টি পরীক্ষণ কার্যক্রম
...