আস্ক প্রশ্নে আপনাকে স্বাগতম ! এটি একটি প্রশ্নোত্তর ভিত্তিক কমিউনিটি। এই সাইট সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন ...
25 বার প্রদর্শিত
"প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে করেছেন (1,375 পয়েন্ট) 3 4 9

1 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (1,375 পয়েন্ট) 3 4 9
বিবাহিত নারীর ভালোবাসা প্রকাশের এক গুরুত্বপূর্ণ দিক শারীরিক

মিলন৷ আবার শারীরিক প্রয়োজনীয়তার একপ্রকার বহিঃপ্রকাশ সেক্স্যুয়াল

অ্যাক্টিভিটি৷ কিন্তু আপনি জানেন কি শারীরিক চাহিদা বা ভালোবাসা প্রকাশের

দিক ছাড়াও এর অনেক গুণ আছে যার ফলে আপনার ব্যক্তিজীবন আনন্দে ভরপুর হয়ে

উঠতে পারে—

ত্বক

ভালো থাকে : শারীরিক মিলনের সময় সারা শরীরে একপ্রকার ম্যাসাজ চলে তার

দ্বারা রিল্যাক্সেশনের ফলে শরীরে কোন প্রকার দাগ থাকে না বা তা ধীরে ধীরে

লুপ্ত হতে থাকে৷

সৌন্দর্য্য

বাড়ে : শারীরিক মিলন কালে হরমোন নিঃসরনের ফলে রক্তপ্রবাহের মাত্রা বেড়ে

যাওয়াতে তার প্রভাব পড়ে ত্বকের ওপরে৷ তার ফলে সৌন্দর্য্য বেড়ে ওঠে৷

আপনার সারা শরীরের মাদকতা আপনার মধ্যে গ্লো আনে৷ শারীরিক মিলন কালে

মহিলাদের শরীর থেকে এস্ট্রোজেন হরমোন নিংসৃত হতে থাকে, যার দ্বারা তাদের

চুল এবং ত্বক আকর্ষনীয় হয়ে ওঠে৷

পিরিয়ডের

সময় ব্যাথা কম হয় : যে সব মহিলাদের সেক্স্যুয়াল লাইফ খুব ভালো হয়

তাদের পিরিয়ডের ক্ষেত্রে সমস্যা কম হয়৷ সাধারণতঃ পিরিয়ডের সময় মহিলাদের

খুব বেশী ব্যাথা হযে থাকে৷ যাদের সেক্স্যুয়াল লাইফে কোন প্রকার অসুবিধা

থাকে না তাদের এই সময়ে ব্যাথার অনুভুতি কম হয়৷ আর শরীরিক মিলনের দিক ঠিক

থাকলে পিরিয়ডের আগে মহিলাদের মধ্যে অনেক সময় যে সমস্যা দেখা যায় তাও

থাকে না৷

কার্ডিওভাস্কুলার

এর ক্ষেত্রে উন্নতি : মহিলারা শারীরিক মিলনের সময় উত্তেজিত হয়ে উঠলে

তাদের হার্টের গতি বেড়ে যায়, ফলে তাদের কার্ডিওভাস্কুলার এর সমস্যার

সমাধান হয়ে থাকে৷

মানসিক

অশান্তি থেকে মুক্তি : মানসিক প্রশান্তি আনার দিক থেকে নিয়মিত শারীরিক

মিলনের অভ্যাস সবথেকে ভালো৷ কারণ শারীরিক মিলনের ফলে মন উত্ফুল্ল থাকে ফলে

মানসিক অশান্তি কম হয়৷

ওজন

কমে : শারীরিক মিলনের ফলে প্রচুর পরিমান ক্যালোরি কম হয় তার ফলে ব্যক্তির

ওজন কম হয়৷ নিয়মিত ভাবে শারীরিক মিলনের ফলে পেটের স্থূলতা কম হয়, আর

মাংসপেশীতে জড়তা কম দেখা যায়৷

বিস্বস্ত

তা বাড়ে : স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে শারীরিক মিলনের বোঝা পড়া ঠিক থাকলে তারা

একে ওপরকে কখনও ঠকায় না৷ তাদের ঘনিষ্ঠতা তাদের এমন কাজ করতে দেয় না৷

কাজ

করার ক্ষমতা বাড়ে : শারীরিক মিলনের সময় হরমোন নিঃসরণ হয় তাই মন শান্ত

থাকে আর নিরন্তর কাজের ক্ষমতা বাড়তে থাকে৷ নিয়মিত ভাবে শারীরিক মিলনের

ফলে ব্যক্তির যৌবন অনেক দিন পর্যন্ত বর্তমান থাকে৷ এর মাধ্যমে ফিটনেস লেবেল

বাড়ে৷ শারীরিক মিলনের ফলে ব্যক্তি সারাদিন স্ফুর্তি অনুভব করে৷ সারাদিনের

কাজে এই স্ফুর্তির প্রভাব দেখা যায়৷ এর দ্বারা সারাদিনের ক্লান্তি থেকে

এবং নানা রোগের হাত থেকে মুক্তি পাওয়া যায়৷

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
2 টি উত্তর
22 ফেব্রুয়ারি 2019 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন রাজীব ছাত্র (43 পয়েন্ট) 1 9

27,423 টি প্রশ্ন

29,191 টি উত্তর

3,112 টি মন্তব্য

2,285 জন সদস্য



আস্ক প্রশ্ন এমন একটি প্ল্যাটফর্ম, যেখানে কমিউনিটির এই প্ল্যাটফর্মের সদস্যের মাধ্যমে আপনার প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান পেতে পারেন এবং আপনি অন্য জনের প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান দিতে পারবেন। মূলত এটি বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য একটি প্রশ্নোত্তর ভিত্তিক কমিউনিটি। বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পাশাপাশি অনলাইনে উন্মুক্ত তথ্যভান্ডার গড়ে তোলা আমাদের লক্ষ্য।

  1. রাজু আহমেদ

    56 পয়েন্ট

    2 উত্তর

    0 প্রশ্ন

  2. মোহা.ইমরান আল জিহাদী

    55 পয়েন্ট

    2 উত্তর

    1 প্রশ্ন

  3. Ahasan

    55 পয়েন্ট

    3 উত্তর

    4 প্রশ্ন

  4. মুত্তালিব

    53 পয়েন্ট

    1 উত্তর

    0 প্রশ্ন

  5. তামিম

    53 পয়েন্ট

    1 উত্তর

    0 প্রশ্ন

শীর্ষ বিশেষ সদস্য

156 টি পরীক্ষণ কার্যক্রম
32 টি পরীক্ষণ কার্যক্রম
3 টি পরীক্ষণ কার্যক্রম
...