283 বার প্রদর্শিত
"অন্যান্য" বিভাগে করেছেন (113 পয়েন্ট)  

5 উত্তর

1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (443 পয়েন্ট)  
আপনি সব সময় লেখালেখির প্যাকটিস বেশি বেশি করবেন।আর যেটুকু লিখবেন পরিষ্কার করে।আপনি  পড়া মুখোস্ত করার পর একবার দুবার খাতায় লিখবেন। এভাবে লেখালেখি করলে  দেখবেন লিখা সুন্দর হয়ে যাবে।
1 টি পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (753 পয়েন্ট)  
সুন্দর হাতের লেখার (better hand
writing) কদর সর্বত্র। আর সেই সাথে সুন্দর
লেখার পাশাপাশি আপনার লেখাটা বা লেখার ধরণটা
যদি হয় দ্রুত (faster hand writing)
তাহলে তো কথায় নেই। পরীক্ষা থেকে শুরু করে
যেকোন কোন লেখা বিষয়ক জায়গায় আপনাকে
পেছনে ফেলে সামনে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা হয়তো
আর কারো থাকবে না।
আমরা অনেকেই দেখেছি দ্রুত লিখতে গেলে হাতের
লেখার অবস্থা হয় একদম বাজে, আর সেই লেখার
তুলনা দিতে গিয়ে কাকের ঠ্যাং বকের ঠ্যাং নিয়ে
টানাটানি শুরু হয়ে যায়। আসুন সুন্দর হাতের লেখার
সাথে সাথে হাতের লেখা দ্রুত করা সম্পর্কে কিছু
টিপস দেওয়া যাকঃ
১) আলাদা আলাদা কলম
ব্যবহার করুন (different types of pen)
হাতের লেখা সুন্দর করতে বা আপনি যে খাতাটায়
লিখছেন সেখানে আপনার লেখা সুন্দর ভাবে
উপস্থাপন করতে আলাদা আলাদা কলম ব্যবহার
করুন। যেমন লেখায় পয়েন্ট করতে জেল পেন,
পয়েন্টিং ভালোভাবে ফুটিয়ে তুলতে মার্কার পেন
এবং স্বাভাবিক লেখার জন্য বলপেন ব্যবহার
করুন। বলপেন আপনার লেখা দ্রুত লিখতে সাহায্য
করবে আর জেল ও মার্কার পেন আপনার লেখার
সৌন্দর্য বৃদ্ধি করবে।
২) লেখার সময় কলম খুব জোরে
চেপে ধরবেন না (loosen your grip)
লিখতে গিয়ে কখনই কলম খুব বেশী চেপে ধরবেন
না। চেপে ধরলে আপনার লেখার গতি কমে যাওয়ার
সাথে সাথে লেখার সৌন্দর্য নষ্ট হয়। তাই আজ
থেকেই লেখার সময় কলম সামান্য আলগা করে
ধরার অভ্যাস করুন লেখার ধরণ সুন্দর হওয়ার
সাথে লেখাও দ্রুত হবে।
৩) লেখার সময় খেয়াল রাখুন
লেখা যেন জড়িয়ে না
যায় (write clearly)
আমরা অনেক সময় দ্রুত লিখতে গিয়ে একটার সাথে
আরেকটা অক্ষর এমনভাবে জড়িয়ে লিখি যে কোনটা
কি আলাদা করে বোঝার উপায় থাকেনা। এতে লেখা
দ্রুত না হয়ে বরং কাটাকাটি করতে গিয়ে সময়
ক্ষেপণ বেশী হয়। তাই লিখতে গিয়ে লেখা যাতে
জড়িয়ে না যায় সেদিকে নজর রাখুন, দেখবেন লেখা
নিজে থেকেই সুন্দর হয়ে যাচ্ছে।
৪) লেখা খুব বেশী বড় বড় করে
লিখবেন না (write smaller)
লেখার সৌন্দর্য বজায় রাখতে যতোটা পারেন ছোট
অক্ষরে লিখতে চেষ্টা করুন। ছোট বলতে মোটামুটি
মাঝারি আকার। বড় বড় লেখা আপনার লেখার
সৌন্দর্য নষ্ট করার পাশাপাশি দ্রুত লেখার পথে
বাধা সৃষ্টি করে।
৫) হাতের পাশাপাশি বাহুকে
লেখাতে সংযুক্ত করুন (engage your arm)
এটা ঠিক লেখার ক্ষেত্রে সব থেকে বেশী হাতের
প্রয়োজন পরে। কিন্তু দ্রুত লিখতে গেলে আপনাকে
হাতের পাশাপাশি বাহুকেও ব্যবহার করতে হবে।
আপনি যদি শুধুমাত্র হাত শক্ত করে লিখে যান
লেখা খারাপ হবে ও সময় বেশী লাগবে। তাই লেখার
সময় হাত শক্ত না রেখে শিথিল করে লিখুন ও
হাতের বাহুর ব্যবহার ঘটান, এতে লেখা দ্রুত ও
সুন্দর হবে।
আপনার পড়াশোনার জীবনে লেখার অবস্থান বলতে
গেলে সবার উপরে। তাই হাতের লেখা দ্রুত ও সুন্দর
করার কোন বিকল্প হয় না।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (189 পয়েন্ট)  
লেখা সুন্দর করার তিনটি মাধ্যম-
১.‘সুন্দর’ করে লেখার বিষয়ে নিজের আগ্রহ বা ইচ্ছে থাকা,
২. হাতের লেখা ‘সুন্দর’ করার সঠিক ও সহজ কৌশল বা উপায় জানা।
৩. নিয়মিত হাতের লেখার চর্চা করা। হাতের লেখার মাধ্যমে বোঝা যায়, মানুষের মনোযোগ, স্থিরতা ও চিন্তা করার ক্ষমতা। ‘সুন্দর’ হাতের লেখার
প্রশংসা সবাই করে। আর হাতের লেখা ‘সুন্দর’ হলে পরীক্ষায়ও ভালো নম্বর পাওয়া যায়।

*** নীচের পরামর্শগুলো অনুসরণ করলে হাতের লেখা অবশ্যই ‘সুন্দর’ হবে-
১। প্রতিটি অক্ষর বা বর্ণ স্পস্ট হতে হবে, যাতে আলাদা-আলাদা ভাবে বোঝা যায় যে, ঠিক কোন অক্ষর লেখা হয়েছে। বাংলা লেখার ক্ষেত্রে, মাত্রার সঠিক ব্যবহার করতে হবে। ইংরেজির ক্ষেত্রে
‘ক্যপিটাল’ ও ‘স্মল’ লেটার সঠিকভাবে লিখতে হবে।
২। লেখার স্টাইল বা ধরণ (যেমন, সোজা/খাড়া বা বাঁকা/কাত) যে রকমই
হোক না কেন, অক্ষরগুলোর আকার ও আকৃতি একই রকম হতে হবে। অক্ষর ছোট-বড় বা মোটা-চিকন করা যাবে না।
৩। এমন কিছু অক্ষর আছে যেগুলো সঠিকভাবে লিখতে পারলে অন্য অনেক অক্ষরও ভালো ভাবে লেখা যায়। যেমন, ‘ব’ সুন্দর করে লিখতে পারলে আরো
লেখা যায় ‘ক’ ‘র’ ‘ধ’ ‘ঝ’ বা ‘ঋ’। আবার কিছু অক্ষর-এর অংশ বিশেষ ব্যবহার করা যায় অন্য অক্ষর-এর মধ্যে।
৪। শব্দ লেখার ক্ষত্রে, অক্ষরগুলোর মধ্যে কম কিন্তু সমান দূরত্ব রাখতে হবে। প্রতিটি শব্দের মধ্যে কমপক্ষে একটি অক্ষরের পরিমাণ দূরত্ব থাকতে হবে।
৫। অবশ্যই লাইন সোজা হতে হবে। লাইন সোজা করতে শুরুতে দাগ টানা খাতায় লেখা চর্চা করা যেতে পারে।
৬। লেখার কগজের বামে, ডানে, উপরে ও নীচে সঠিক মার্জিন রাখতে হবে। প্রয়োজনে, ভাঁজ করা অথবা দাগ টেনে নেওয়া যেতে পারে।
৭। কোনো শব্দ বা লাইন ভুল হলে তা এক দাগে কেটে দিতে হবে। বেশী কাটাকাটি করা যাবে না।
৮। দাঁড়ি, কমা, সেমিকোলন,
‘আ’কার-‘ই’কার ইত্যাদি ছোট ছোট অংশের প্রতি নজর দিতে হবে। বিন্দু বা গোল চিহ্ন-গুলো সঠিকভাবে গোল করতে হবে।
সবশেষে,
খেলাধুলা বা পড়ালেখার মত, হাতের লেখা ভালো করার ক্ষেত্রে নিয়মিত চর্চার বিকল্প নেই। প্রথমে আস্তে আস্তে ভালো করে লিখতে হবে। পরবর্তীতে দ্রুত লিখলেও লেখা ভালো হবে।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (8,321 পয়েন্ট)  
যখন সময় পাবেন শুধু লিখবেন এই ভাবে করুন লেখা সুন্দর হয়ে যবে!
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
করেছেন (3,014 পয়েন্ট)  
বেশি বেশি করে হাতের লেখা অনুশীলন করুন। যাদের হাতের লেখা সুন্দর তাদের লেখা দেখে বেশি বেশি করে প্রাকটিস করুন। হাতের লেখা অবশ্যই সুন্দর হবে।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

2 টি উত্তর
31 ডিসেম্বর 2017 "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Ayaan (2,781 পয়েন্ট)  
2 টি উত্তর
1 উত্তর
2 টি উত্তর
23 ডিসেম্বর 2017 "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন রাজ (171 পয়েন্ট)  
5 টি উত্তর
18 ডিসেম্বর 2017 "অন্যান্য" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Md sumon (113 পয়েন্ট)  

21,396 টি প্রশ্ন

21,779 টি উত্তর

2,875 টি মন্তব্য

1,663 জন সদস্য



আস্ক প্রশ্ন এমন একটি প্ল্যাটফর্ম, যেখানে কমিউনিটির এই প্ল্যাটফর্মের সদস্যের মাধ্যমে আপনার প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান পেতে পারেন এবং আপনি অন্য জনের প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান দিতে পারবেন। মূলত এটি বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য একটি প্রশ্নোত্তর ভিত্তিক কমিউনিটি। বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পাশাপাশি অনলাইনে উন্মুক্ত তথ্যভান্ডার গড়ে তোলা আমাদের লক্ষ্য।

  1. Md. Redowan Islam

    181 পয়েন্ট

  2. Zahid 420

    150 পয়েন্ট

  3. Md.Rasel Ahmed

    147 পয়েন্ট

  4. অা ক ম আজাদ

    116 পয়েন্ট

  5. জ্ঞানের বাদশাহ

    114 পয়েন্ট

...